কেরোসিন ঢেলে অগ্নিদগ্ধ হয়ে শিশু সন্তানসহ আত্মহত্যা : প্রেমিক গ্রেপ্তার



সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি :

পরকীয়ার জেরে মানিকগঞ্জের সিংগাইরে কেরোসিন ঢেলে অগ্নিদগ্ধ হয়ে পুতুল ও তার দু’বছরের শিশু কন্যা আনহার মৃত্যুর জন্য দায়ী পরকীয়া প্রেমিক পিন্টুকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছেন থানা পুলিশ। গ্রেপ্তার পিন্টু ঢাকাস্থ কল্যানপুর পোড়া বস্তির সাত্তার মিস্ত্রির পুত্র।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোস্তফা কামাল বলেন, গ্রেপ্তার পিন্টুকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে বুধবার (১৩ মে) আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। এর আগে গত মঙ্গলবার দুপুরে তাকে ঢাকার মিরপুর থানা পুলিশের সহায়তায় সরকারি বাঙলা কলেজের সামনে থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত ৯ মে পুতুলের বাবা মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ৯(ক)/৩০ ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলার অন্য আসামীরা হচ্ছে- পিন্টুর ভাই মোঃ নান্টু (২৮) , বোন মিনারা বেগম(৪০) ও চাচা চাঁন মিয়া (৪৮) ।

প্রসঙ্গত, পরকীয়া প্রেমের জের ধরে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হলে স্বামী সুমন পুতুল ও শিশু কন্যা আনহাকে নিয়ে ঢাকা ছেড়ে দু‘মাস আগে সিংগাইর উপজেলার ফোর্ডনগর খানপাড়া চুন্নুর বাড়িতে বাসা ভাড়া নেন। তার পরেও প্রেমিক পিন্টু মোবাইল ফোনে পুতুলকে উত্যক্ত করতে থাকে। এতে সে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন। অতিষ্ট হয়ে গত(৪মে) গভীর রাতে স্বামী সুমন ও মেয়েকে ঘুমে রেখে নিজের শয়ন কক্ষে শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় শিশু কন্যা আনহা ঘুম থেকে ওঠে মায়ের ওপর ঝাপিয়ে পড়লে সেও অগ্নিদগ্ধ হয় । দগ্ধ মা ও সন্তানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হলে ভোর রাতে পুতুলের মৃত্যু হয় এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত (৭মে) শিশু আনহারও মৃত্যু ঘটে।

শেয়ার করুন!