জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই



ফাইল ছবি।
সিএনবাংলাদেশ অনলাইন :

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই ( ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) বিকেল পৌনে ৫টার দিকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের ছেলে আনন্দ জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ৯ মে দুপুরে এই বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, ভাষাসংগ্রামী, মুক্তিযোদ্ধা ও জাতীয় অধ্যাপককে রাজধানীর ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতাল থেকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) স্থানান্তর করে নিবিড় পর্যবেক্ষণে (সিসিইউ) ভর্তি করা হয়।

বেশকিছুদিন ধরে তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের ছেলে আনন্দ জামান বলেন, আমার বাবা দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন।

এর আগে বার্ধক্যজনিত সমস্যার কারণে গত ২৭ এপ্রিল রাজধানীর ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতালে ভর্তি হন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। সেখানে চিফ কার্ডিওলজিস্ট অধ্যাপক ডা. খন্দকার কামরুল ইসলামের অধীনে চিকিৎসা নেন তিনি। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় হাসপাতাল বদলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে ভারতের রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ‘পদ্মভূষণ’ পেয়েছেন দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। নিজের বর্ণাঢ্য কর্মজীবনে নানা সফলতা পেয়েছেন এ গুণী শিক্ষক। তিনি মওলানা আবুল কালাম আজাদ ইন্সটিটিউট অব এশিয়ান স্টাডিজ (কলকাতা), প্যারিস বিশ্ববিদ্যালয় এবং নর্থ ক্যারোলাইনা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে ভিজিটিং ফেলো ছিলেন ।
এছাড়াও অধ্যাপক আনিসুজ্জামান নজরুল ইনস্টিটিউট ও বাংলা একাডেমীর সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি প্রত্যক্ষভাবে ১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ভাষা আন্দোলন, রবীন্দ্র উচ্ছেদবিরোধী আন্দোলন, রবীন্দ্র জন্মশতবার্ষিকী আন্দোলন এবং ঐতিহাসিক অসহযোগ আন্দোলনে তিনি সম্পৃক্ত ছিলেন।

শেয়ার করুন!