হবিগঞ্জে চোরদের কাছে অসহায় পুলিশ!



ফাইল ছবি।
স্টাফ রিপোর্টার, হবিগঞ্জ :

হবিগঞ্জ শহরে মোটর সাইকেল চোরের উপদ্রব মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। তাদের হাত থেকে পুলিশ, সাংবাদিক, আইনজীবিসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ রেহাই পাচ্ছে না। একমাসে প্রায় ২০টি মোটর সাইকেল শহর থেকে চুরি হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত একটি মোটর সাইকেলও উদ্ধার করতে পারেনি প্রশাসন। তবে সাধারণ মানুষ মনে করছেন চোর পুলিশ খেলায় চোরদের কাছে যেনো পুলিশ অসহায়।

কিছুদিন আগে বিজয়ের প্রতিধ্বনির বার্তা সম্পাদক সাইফুর রহমান তারেকের মোটর সাইকেল দক্ষিণ তেঘরিয়া থেকে, সদর কোর্টের টিএসআই নাসির উদ্দিনের মোটর সাইকেল অনন্তপুর এলাকার বাসা থেকে, এ ছাড়া এক আইনজীবির মোটর সাইকেল বাসা থেকে চুরি হয়। এ রকম ভিন্ন পেশায় জড়িত লোকদের ২০টি মোটর সাইকেল চুরি হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত একটি মোটর সাইকেলও উদ্ধার করা হয়নি! এর আগে সোনালী ব্যাংকের পাশে একটি চায়ের দোকানের সামন থেকে মোটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে যাবার সময় জনতা হাতেনাতে দুইজনকে আটক করে পুলিশে দেয়। এতে করে মোটর সাইকেল মালিকদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। তবে তারা মনে করেন থানায় এ পর্যন্ত ৫-৬টি জিডি জমা আছে। কিন্তু পুলিশ মোটর সাইকেল উদ্ধারে কোনো তৎপরতা দেখাচ্ছে না। ২০১৭ সালে ডিবির এসআই আব্দুল করিমের একটি মোটর সাইকেল শহর থেকে চুরি হলে ২ ঘণ্টার ভেতরে মোটর সাইকেলটি উদ্ধার হয় এবং চোরসহ আরও বেশ কয়েকটি মোটর সাইকেল আটক করা হয়। কিন্তু সাধারণ পাবলিকের ক্ষেত্রে পুলিশ মোটর সাইকেল উদ্ধারে তেমন একটা আগ্রহ দেখায় না বলে মোটর সাইকেল মালিকদের অভিযোগ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ইচ্ছা করলে পুলিশ অনেক জটিল ও রহস্যজনক ঘটনাও ২৪ ঘন্টার মধ্যে সমাধান করতে পারে। তবে এ জন্য তাদেরকে আন্তরিক হতে হবে।

শেয়ার করুন!