চরভদ্রাসনে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা



ফরিদপুর প্রতিনিধি :

প্রতীকী ছবি। ফরিদপুরের চরভদ্রাসন সদর ইউনিয়নের কেএম ডাঙ্গী গ্রামের বাসিন্দা ইব্রাহীম খানের (৬৯) বিরুদ্ধে ১১ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে মেয়েটির বাড়ির পাশে বাঁশবাগানে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান তার পরিবারের সদস্যরা। এ বিষয়ে সোমবার চরভদ্রাসন থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী মেয়েটির চাচা জানান, ঘটনার দিন বিকেলে বাঁশঝাড়ের পাশের মাঠে ছাগল চড়াতে গেলে শিশুটির সঙ্গে অপ্রীতিকর অবস্থায় ইব্রাহীমকে দেখতে পান তিনি। তাকে দেখে ইব্রাহীম দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে শিশুটিকে বাড়ি নিয়ে যান তিনি।

লোকলজ্জার ভয়ে মামলা করতে দেরি করেছেন উল্লেখ করে তিনি জানান, মেয়েটির বাবা দশ বছর আগে মারা গেছেন। মা বিদেশে থাকেন ও অন্যত্র সংসার করছেন। অসহায় মেয়েটি কখনও চাচা, ফুপা আবার কখনও তার নানাবাড়িতে থাকে। ইব্রাহীম মেয়েটির অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়েছে।

ভুক্তভোগী কিশোরী জানায়, ঘটনার দিন বিকেলে বিভিন্ন ধরনের কথা বলে ইব্রাহীম তাকে বাঁশবাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। আগেও একদিন তাকে ওই বাগানে নিয়ে যায় ইব্রাহীম।

এ বিষয়ে ইব্রাহীমের স্ত্রী ছবুরা খাতুন (৬০) জানান, সকাল থেকেই তার স্বামী বাড়িতে নেই। প্রতিবেশীর মাধ্যমে দু’দিন আগে শিশুটির সঙ্গে তার স্বামীর এমন অপকর্মের কথা জানতে পারেন। তবে তিনি তার স্বামীকে নির্দোষ দাবি করে বলেন, এটা তার পরিবারের বিরুদ্ধে কোনো চক্রান্ত।

চরভদ্রাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ বলেন, ভুক্তভোগী শিশুটির চাচা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। শারীরিক পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন!