পূজা মণ্ডপে হামলা-প্রতিমা ভাঙচুর: কানাডায় প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন পালিত



প্রবাস ডেস্ক/

বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা, পূজা মণ্ডপ ও প্রতিমা ভাঙচুরসহ নানা ঘটনার প্রতিবাদে কানাডার ক্যালগেরিতে প্রবাসী বাঙালিরা প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন।

কানাডার আলবার্টার স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কঠোর কোভিড নিষেধাজ্ঞার মধ্যে মাস্ক পরে ক্যালগেরির ইসকন মন্দিরের সামনে শান্তিপূর্ণভাবে স্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রবাসীরা মানববন্ধন পালন করেন।

সভায় প্রবাসী বাঙালিরা বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতি ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ স্বরূপ কালো কাপড়ের মাস্ক পরে এই প্রতিবাদে যোগ দেন। সভায় বাংলাদেশের সংখ্যালঘু ও হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর এই অত্যাচার বন্ধের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নিতে সরকার ও বিশ্বনেতৃবৃন্দের কাছে আহ্বান জানানো হয়। হিন্দুদের উপর চলমান সহিংসতা ও নির্যাতনের জন্য দুষ্কৃতকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ হিন্দুদের জানমালের আশু নিরাপত্তা বিধানেরও দাবি জানানো হয়।ৱ

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচিতে ক্যালগেরির বাংলাদেশি হিন্দু সম্প্রদায়ের নেৃতৃবৃন্দ ও অসাম্প্রদায়িক প্রবাসী বাঙালিরা উপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে ছিলেন কিরণ বণিক শংকর, রূপক দত্ত, সুব্রত বৈরাগী, জয়ন্ত সাহা, দেবাশীষ রায়, জুবায়ের সিদ্দিকী প্রমুখ। আয়োজকদের মধ্যে ছিলেন জয়দীপ সান্যাল, তন্ময় তালুকদার, শুভ্র দাস, নবাংশু শেখর, শান্তনু বণিক, প্রাণবেন্দ্র সেনগুপ্ত, প্রদ্যুত চক্রবর্তী, ববি পাল, পাপলু পাল, বিনিতা দত্ত সহ অর্ধশতাধিক প্রবাসী বাঙালি।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, দুষ্কৃতিকারীদের কোন ধর্ম নেই। এরা মানবতা বিরোধী, দেশ ও দশের শত্রু। তারা বলেন, এই প্রতিবাদ শুধুমাত্র বাংলাদেশের হিন্দুদের জন্য নয়, এই প্রতিবাদ প্রত্যেকটি প্রগতিশীল বাংলাদেশীদের জন্য। সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়ুক এই প্রতিবাদ। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

শেয়ার করুন!