সিলেট জেলার সর্বোচ্চ করদাতা সম্মাননা পেয়েছেন আবুল কালাম



স্টাফ রির্পোটার, সিলেট/

সিলেট জেলার সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন সিলেট বিভাগীয় ফলমূল ও কাঁচামাল আমদানি-রফতানি গ্রুপের সভাপতি মো. আবুল কালাম। তিনি জকিগঞ্জ উপজেলার বাখরশাল এলাকার বাসিন্দা আব্দুল মতিনের পুত্র ও আমদানি রপ্তানি কারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স আবুল কালাম’র সত্ত্বাধিকারী। সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে তাঁকে সম্মাননা প্রদান করেছে কর অঞ্চল সিলেট।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় সিলেট নগরীর উপশহর মেন্দিভাগ এলাকায় একটি রেস্টুরেন্টে এ উপলক্ষে এক অনাড়ম্বর আনুষ্ঠানিকতার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে মোট ১৪ জনকে সম্মাননা পুরস্কার দেওয়া হয়।

এসময় নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে আবুল কালাম বলেন, আমি ১৯৮৯ সালে কেবল ভারতের সাথে ব্যবসা শুরু করি। পর্যায়ক্রমে আমার ব্যবসা এখন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রসারিত হয়েছে। যার স্বীকৃতি হিসেবে ২০০৪-০৫ অর্থ বছরে সেরা আমদানি রপ্তানিকারক এওয়ার্ড অর্জন করি। বর্তমানে বিভিন্ন দেশের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্ক সহজ হওয়ায় আমরা ব্যবসায়ীরা সুযোগ পাচ্ছি। যার কারণে করও দিতে পেরেছি। এজন্য সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

এদিকে করদাতাদের সম্মাননা উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের পূর্বে আলোচনা সভায় সর্বোচ্চ আয়কর দাতাদের সুধিজন হিসেবে স্বীকৃতি দেবার দাবি জানিয়ে অতিথিরা বলেন, আয়কর হচ্ছে দেশের উন্নয়নের অক্সিজেন। আয়কর দাতার সংখ্যা বাড়ায় বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশের রূপান্তর হয়েছে। এক সময় বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলে বিদেশের সাহায্য নিতে হত। কিন্তু এখন পার্শ্ববর্তী অনেক দেশকে বাংলাদেশ সাহায্য করে। যা সম্ভব হয়েছে আয়কর আদায়ের মাধ্যমে।

অনুষ্ঠানে ২০২০-২১ করবর্ষের সিলেট জেলার মধ্যে সর্বোচ্চ কর দাতা আবুল কালাম ছাড়াও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কর দাতা হিসেবে ফেঞ্চুগঞ্জের মোহাম্মদ আবু তাহের, তৃতীয় সর্বোচ্চ কর দাতা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কলাবাড়ি দয়ার বাজার এলাকার মো. রফিকুল ইসলামকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

একই সময়ে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ নারী করদাতা হিসেবে খাদিম নগর শাহপরান এলাকার ফাহমিদা সাদিক ও তরুণ করদাতা হিসেবে জকিগঞ্জের শিমুল এন্টারপ্রাইজের ব্যবসায়ী মো. খায়রুল হাসানকেও পুরস্কার দেওয়া হয়।

অপরদিকে সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় সর্বোচ্চ করদাতা হিসেবে প্রথম স্থান অধিকারী ফাজিল চিশত এলাকার বাসিন্দা এ, কে, এম আতাউল করিম, দ্বিতীয় স্থানে কালিঘাটের মেসার্স আতিক হোসেন আমজাদ এর ব্যবসায়ী মো. আতিক হোসেন, তৃতীয় স্থান অধিকারী স্বপ্ন নীড় ৬২ ভ্যালিসিটি শাহী ঈদগাহ এলাকার বাসিন্দা ফরিদ বক্সকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

এসময় সিসিক এলাকায় সর্বোচ্চ নারী করদাতা হিসেবে কুমারপাড়া এলাকার সালেহা বেগম ও তরুণ করদাতা হিসেবে সিটি হার্ট শপিং সেন্টারের ব্যবসায়ী মো. এনামুল হককেও সম্মাননা প্রধান করা হয়।

একই ভাবে দীর্ঘ মেয়াদি ক্যাটাগরিতে সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় দুজন ও সিলেট জেলায় আরও দুজনকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

সম্মাননা অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল সিলেটের কর কমিশনার মো. সাইফুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট সিলেট অঞ্চলের কমিশনার মো. আহসানুল হক।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট চেম্বারের সভাপতি এটিএম শোয়েব, সিলেট জেলা কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এম শফিকুর রহমান। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কর অঞ্চল সিলেটের যুগ্ম কর কমিশনার শরীফুল ইসলাম।

শেয়ার করুন!