হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে বাড়ছে দালালের দৌড়াত্ব



জুয়েল চৌধুরী, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি/

কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারনে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে দালালদের দৌরাত্ম দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ কারনে প্রতিনিয়তই তাদের সাথে হাঙ্গামাসহ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে।

অভিযোগ রয়েছে দশটার পর হাসপাতালে রোগী আসার সাথে সাথেই কতিপয় দালালরা ডাক্তার নেই বলে বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে গিয়ে ইচ্ছামাফিক চিকিৎসার নামে গলাকাটা দাম নেয়া হয়। আর এসব দালালদের খপ্পরে পড়েন গ্রামগঞ্জ থেকে আসা সহজ সরল রোগীরা। এছাড়া কিছু দালালরা হাসপাতালের অসাধু কর্মচারীদের ছত্রছায়ায় থেকে এসব করে যাচ্ছেন। বিনিময়ে প্রাইভেট হাসপাতাল থেকে মোটা অংকের কমিশন নেয়া হয়।

রোগী ও তার স্বজনদের অভিযোগ, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বারবার বলার পরও তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়ায় দিন দিন তাদের দৌরাত্ম বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ১০ জুন রাত ১১টায় আজমিরীগঞ্জ থেকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রোগী হাসপাতালে আসে। এ সময় এক দালাল জানায় হাসপাতালে ডাক্তার নাই। রোগীকে বাঁচাতে চাইলে প্রাইভেট হাসপাতালে নিতে হবে বলে কোর্ট স্টেশনের এক প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর তার কাছ থেকে বড় অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। তখন ওই রোগীর আত্মীয় এক নেতাকে জানালে তিনি এসে দালালকে হাসপাতালে মারধোর করেন। ওই দিন হাসপাতালের দালালরা পালিয়ে যায়। এরকম অবস্থায় চলছে দালালদের দৌড়াত্ব।

শেয়ার করুন!