নীলফামারীতে ৫ দিনব্যাপি রোভার মুট ক্যাম্পের উদ্বোধন



নীলফামারী প্রতিনিধি :

“মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ, করবো রোভারিং গড়বো দেশ” এই শ্লোগান নিয়ে নীলফামারীতে শুরু হয়েছে পাঁচদিনব্যাপি ষষ্ঠ জেলা রোভার মুট ক্যাম্প। বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে জেলা সদরের পলাশবাড়ি কলেজ চত্বরে ক্যাম্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন নীলফামারী-২ আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর।

এসময় নূর বলেন, রোভার স্কাউটস প্রকৃত মানুষ হিসাবে গড়ে উঠার শিক্ষা দেয়। এর মাধ্যমে মানুষকে সেবা দিব, মানুষের বিপদে এগিয়ে আসবো শিক্ষা অর্জন করা যায়। অর্জন করা যায় নিষ্ঠা এবং দায়িত্ববোধ। স্কাউটের যে সাতটি আইন রয়েছে তা যদি তোমরা মনে প্রাণে ধারণ করতে পারো তাহলে তোমরা স্কাউটিং’এর সঠিক শিক্ষা অর্জন করতে পারবা।
নূর বলেন, বাংলাদেশে স্কাউটস এর শুরু বঙ্গবন্ধুর হাত দিয়ে হয়েছিল। তাই তোমরা নিষ্ঠার সাথে সেটি ধারণ করার চেষ্ঠা করবে। মুজিববর্ষে লক্ষ লক্ষ টাকা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে খরচ না করে সেই টাকা দিয়ে অসহায় মানুষের সাহায্য করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কারণ বঙ্গবন্ধু যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন তা বাস্তবায়ন করছেন তা কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। এবং তার যোদ্ধা হচ্ছো তোমরা।

উদ্বোধন শেষে মুটের সদস্যরা ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের উপর একটি ডিসপ্লে প্রদর্শন করেন।

জেলা প্রশাসক ও জেলা রোভারের সভাপতি হাফিজুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন, নীলফামারী সরকারি কলেজের অধ্যক দেবী প্রসাদ রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাহারুল ইসলাম, নীলফামারী পৌর সভার ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাহিদ মাহমুদ, মশিউর রহমান ডিগ্রি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সারোয়ার মানিক, জেলা রোভারের কমিশনার এ,কে,এম মাহবুবুর জামান, সম্পাদক কাজী জাকিউল ইসলাম, রোভার স্কাউটস লিডার ও ক্যাম্প চীফ করিমুল ইসলাম, পলাশবাড়ি কলেজের অধ্যক্ষ সুমনা শাহনাজ চৌধুরী প্রমুখ।
আয়োজকরা জানান, জেলার ছয় উপজেলার ২৯টি দল অংশ নেয় ক্যাম্পে। এবারের মুটে মেয়েদের ৯টি দলে ৮০জনসহ ৩৬৭জন অংশ নিয়েছেন। কাজ করছেন ৪০জন সেচ্ছাসেবক। গত ২৫ ফেব্রæয়ারি থেকে সদস্যরা অবস্থান করছেন ক্যাম্পে।এটি সমাপ্ত হবে ২৯ ফেব্রæয়ারি।

শেয়ার করুন!