গুজব, ইরানে করোনা থেকে বাঁচতে মদ খেয়ে মৃত্যু ৪৮০!



সিএনবাংলাদেশ ডেস্ক :

ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক ও বাঁচার উপায় খুঁজতে বিশ্ব যখন প্রতি মুহূর্তে লড়ছে, তখন করোনার সঙ্গে সঙ্গে আরও একটি ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে হচ্ছে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানকে। আর সেটা হল গুজব বা অন্ধ বিশ্বাস। মদ পান করলে করোনা থেকে বাঁচা যায় না- এই সত্যকে ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে।

মদপান ও আমদানি নিষিদ্ধের দেশ ইরানে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ার পর হঠাৎই কিছু মানুষের মধ্যে মদপান করা শুরু হয়ে যায়। গুজবের প্রতি আকৃষ্ট হন তারা।

বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি) বলছে, স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের তথ্যানুযায়ী- দেশটিতে বিষাক্ত মিথানল (এক ধরনের অ্যালকোহল বা মদ) পানে প্রায় ৩০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে; অসুস্থ হয়েছেন এক হাজারের বেশি মানুষ।

তবে মদপানে মৃতের প্রকৃত সংখ্যা প্রায় ৪৮০ এবং অসুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা দুই হাজার ৮৫০ জনের মতো বলে জানিয়েছেন ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একজন চিকিৎসক।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা নিয়ে সরকারের দেওয়া তথ্য নিয়ে প্রশ্ন ওঠার মধ্যেই মদপানে এই ভাইরাস থেকে মুক্তির মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা ড. হোসেন হাসনাইন বলেন, অন্য দেশগুলোকে শুধু করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়তে হচ্ছে। তবে আমরা লড়ছি দুইটি বিষয়ের বিরুদ্ধে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের সঙ্গে সঙ্গে মদপানে অসুস্থদেরও সুস্থ করে তুলতে চেষ্টা করতে হচ্ছে আমাদের।

গত ফেব্রুয়ারিতে ইরানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি বার্তা ছড়িয়ে পড়ে করোনার সংক্রমণ রোধের উপায় নিয়ে। ওই বার্তায় বলা হয়, করোনায় আক্রান্ত ব্রিটেনের একটি স্কুলের শিক্ষক ও অন্যান্যরা হুইস্কি ও মধু পান করে সুস্থ হয়েছেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই এর প্রভাব পড়তে থাকে দেশটিতে।

গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম করোনার অস্তিত্ব ধরা পড়ে; এরপর তা সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসে মধ্যপ্রাচ্যে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় শীর্ষ দেশ ইরান। এখন পর্যন্ত দেশটিতে ২৯ হাজার ৪০৬ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২৩৪ জনের।

শেয়ার করুন!