গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে রাজধানীতে বিক্ষোভ



ছবি-সংগৃহীত ।
সিএনবাংলাদেশ অনলাইন :

ফি‌লি‌স্তি‌নের গাজায় ইসরা‌য়ে‌লের বর্বর হামলার প্রতিবা‌দে ঈ‌দের দি‌নে রাজধানীতে বি‌ক্ষোভ মি‌ছিল ও সমা‌বে‌শ ক‌রে‌ছে চর‌মোনাই‌য়ের পী‌রের নেতৃত্বাধীন ইসলামী আ‌ন্দোলন। শুক্রবার জুমার নামা‌জের পর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মস‌জি‌দের উত্তর গে‌টে সমা‌বে‌শের পর মি‌ছিল ক‌রেন দল‌টির ক‌য়েক হাজার নেতাকর্মী।

মি‌ছি‌লে নেতৃত্ব দেন ইসলামী আ‌ন্দোল‌নের মহাসচিব মাওলানা ইউনুস আহমদ। সমা‌বে‌শে তি‌নি বলেন, আধুনিক বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ ও দমন পীড়নের শীর্ষে ইসরায়েল। রমজানের মধ্যে আবারও দানবীয় রুপে আবির্ভূত হয়েছে ইসরা‌য়েল। গোটা বিশ্ব যখন করোনা মহামারিতে দি‌শেহারা তখনই অশুভ ইহুদীবাদী এই শক্তি তার বিষাক্ত নখ-দন্ত মেলে ধরেছে। ইফতার ও নামাজ পড়ার মতো ইবাদাত চলাকালে গত সোমবার জেরুসালেমের আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ঢুকে ইসরায়েলি পুলিশ বেধড়ক লাঠিপেটা, কাঁদানে গ্যাস এবং নির্বিচার রাবার বুলেট ছুড়ে ৩০০ এর বেশি ফিলিস্তিনিকে আহত করে। পুরো রমজান জুড়েই পুলিশের বাড়াবাড়ি ছিলো চরমে। এছাড়া নিরবচ্ছিন্ন দখলদারীর মধ্যেই নতুন করে আদালতের মাধ্যমে কয়েকটি ফিলিস্তিনি পরিবারকে উৎখাতের বিতার্কিত একটি অপতৎপরতা শুরু করে। এরই প্রেক্ষিতে ফিলিস্তিনিরা শান্তিপূর্ণ ক্ষোভ প্রকাশ করতে গেলে বর্বরতার চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছায় ইসরাইলি বাহিনী। এরপর তাদের হামলায় হাজার খানেক মানুষ আহত ও শতাধিক নিহত হয়েছেন। মানব সভ্যতার ক্রান্তিকালে ইসরায়েলের এই দানবিক আচরণ আবারও প্রমাণ করলো যে, ইসরায়েলের অস্তিত্ব বিশ্ব শান্তির জন্য ক্ষতিকর।

মাওলানা ইউনুস আহমদ আরও বলেন, মানবতার এবং বিশ্ব শান্তি রক্ষার জন্য ইসরায়েলের বিনাশ সাধন করতে হবে। ৭৩ বছর ধরে আমরা ইসরায়েলের বর্বরতা দেখে আসছি। কিন্তু জাতিসংঘসহ বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলো তাদের বিরুদ্ধে কার্যকর কিছুই করছে না। এমতাবস্থায় বিশ্ব সংস্থাসমূহের বিশ্বাসযোগ্যতা ও আন্তরিকতা নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠেছে।

ইসলামী আ‌ন্দোল‌নের যুগ্ম মহাস‌চিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান পবিত্র ঈদের দিন বিক্ষোভ প্রদর্শনের যৌক্তিকতা তুলে ধরে বলেন, ৭৩ বছর পূর্বে ১৯৪৮ সালের ১৪ মে এই দিনেই দখলদার ইসরায়েল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হয়েছে। মুসলিম উম্মাহর ইতিহাসে ১৪ মে একটি কালো দিবস। তিনি বলেন, জায়নবাদী ইসরায়েলীরা প্রকৃত ইহুদী ধর্মেও বিশ্বাসী নয়।

সমা‌বে‌শে বক্তারা ব‌লেন, সরকা‌রি, বি‌রোধীসহ বাংলা‌দে‌শের প্রায় সকল রাজ‌নৈ‌তিক দল ইসরা‌য়ে‌লি হামলার প্রতিবাদ ক‌রে‌ছে। সরকারের এখন উচিৎ- শুধু বিবৃতির মাধ্যমে প্রতিবাদে সীমাবদ্ধ না থেকে মজলুম ফিলিস্তিনীদের পক্ষে কার্যকর কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করা।

ইসলামী আন্দোলনের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের সভাপ‌তি‌ত্বে সমা‌বে‌শে আ‌রো বক্তৃতা ক‌রেন প্রেসি‌ডিয়াম সদস‌্য শেখ ফজ‌লে বারী মাসাউদ, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম আতিকুর রহমান, ইসলামী যুব আন্দোলনের সভাপতি নেছার উদ্দিন প্রমুখ।

শেয়ার করুন!