স্ত্রী বে-হিসাবী হওয়ায় হাতুরি দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা



প্রতীকী ছবি।
নাটোর প্রতিনিধি :

নাটোরে স্ত্রীর বে হিসাবী জীবনযাপনে অতিষ্ঠ হয়ে হাতুরি দিয়ে আঘাত করে স্ত্রীকে হত্যা করে গামেন্টস কর্মী মিলন ইকবাল। আত্মীয় বাড়িতে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে পরিকল্পনা অনুযায়ী হাতুরি দিয়ে স্ত্রী রাখি খাতুনকে হত্যা করে। ঘটনার ৬দিন পর হত্যা রহস্য উৎঘাটন শেষে রবিবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা এই তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, ঢাকায় ডিবিএল গামেন্টসে ১৪হাজার টাকার বেতনে চাকুরি করেন মিলন ইকবাল। সংসার খরচ হিসেবে প্রতি মাসে ১০হাজার টাকা দেয় সে। কিন্তু স্ত্রীর বে হিসাবী জীবন-যাপনে অতিষ্ঠ হয়ে উঠে মিলন। এক পর্যায়ে স্ত্রী রাখি খাতুনকে গত ১জুন নাটোরে আত্মীয়ের বাড়িতে ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে আসে। এসময় গুরুদাসপুর উপজেলার ১০নম্বর ব্রীজ এলাকার একটি পাট ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে হাতুরি দিয়ে স্ত্রীকে আঘাত করে হত্যা নিশ্চিত করে ইকবাল মিলন। পরে পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় পরিচয় নিশ্চিত করে মামলা দায়ের করে। হত্যার রহস্য উদঘাটন করে রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ি এলাকা থেকে মিলন ইকবালকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এসময় প্রেস ব্রিফিংয়ে সিংড়া সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার জামিল আকতার, গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাহার আলী সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন!