সৌদির রিয়াদে বিপাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নারী, দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা



ফাইল ছবি।

নিজস্ব প্রতিবেদক/

ক্ষুধা থেকে বাঁচতে গত ২০-২৫ দিন আগে কাজের সন্ধ্যানে বাংলাদেশ ছেড়ে সৌদি আরবের রিয়াদে পাড়ি জমান রোমানা বেগম নামের এক নারী। বর্তমানে তিনি রিয়াদ বিমানবন্দর থেকে প্রায় ঘন্টাখানিকের দূরবর্তী স্থান রিয়াদ অফিসেই অবস্থান করছেন। তাকে প্রতিনিয়ত সহ্য করতে হচ্ছে নির্যাতন-নিপীড়ন। সেখানে না খেয়ে অর্ধাহারে অনাহারে কাটছে তার জীবণ। আত্মীয়-স্বজনের সাথেও বিষয়টি শেয়ার বা যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হচ্ছেন। বর্তমানে তিনি চরম বিপাকে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন মর্নিংগ্লোরি প্রতিবেদক’কে।

শনিবার রাতে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে এসে ওই নারী কান্নাজড়িত কন্ঠে প্রতিবেদক’কে বলেন, রিয়াদ অফিসে তিনি অবস্থান করছেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর থানার কাহেতুরা গ্রামের বাসিন্দা। তার মুঠোফোনে কোন সিমকার্ড না থাকায় কথা বলতেও পারছেন না। শুধুমাত্র তিনি ম্যাসেঞ্জারে বিষয়টি প্রতিবেদকের নিকট অবহিত করে তার বাড়ির ঠিকানা দিয়ে জানান, আমার নাম হচ্ছে রোমানা বেগম, বর্তমানে অফিসে আছি রিয়াদ,অফিসে আছি, এই অফিস থেকে একঘন্টা লাগে ইয়ারপোর্ট যাইতে রিয়াদ অফিস থেকে, তো আমার নাম হচ্ছে রোমানা, ঠিক আছে, অফিসে আছি বর্তমানে, আমি খুব কষ্টে আছি, যদি পারেন হেল্প করতে করবেন আর না পারলে তো ভাই কিছু করার নেই, আমার কপালে যা আছে তাই হবে, কপাল এমন একটা জিনিষ কেউ কপালের কষ্ট দুঃখ মুছে নিতে পারবেনা, আল্লাহ জানে, যে আল্লাহ সৃষ্টি করছে এই আল্লাই আসলে সত্যি যা ভাল বুঝবে তাই করবে, বুঝেন নাই। এরপর তার ম্যাসেঞ্জার চ্যাটটি কেটে যায়। এসময় তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিকট তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য আকুল আবেদন করেন।

শেয়ার করুন!