মা-মেয়েকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক ২



শেরপুর প্রতিনিধি/

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার পোড়াগাঁও ইউনিয়নের পলাশিকুড়া গ্রামে মা-মেয়েকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে সাতজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল গণমাধ্যমকে জানান, শেরপুর সদর উপজেলার এক গৃহবধূ তার মেয়েকে (১৬) নিয়ে নালিতাবাড়ীতে বাবার বাড়ি এসেছিলেন। শনিবার সকাল ১১টার দিকে তারা অটোবাইকে শেরপুর যাওয়ার জন্য বের হন। পথে সাত্তার (৪৫) ও সাদেক আলীসহ (৩০) কয়েকজন তাদের শেরপুরে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে অটোরিকশায় তোলেন। সন্ধ্যার দিকে তারা পলাশিকুড়ায় একটি নির্মাণাধীন বাড়িতে নিয়ে মা-মেয়েকে ধর্ষণ করেন।

‘ধর্ষণের শিকার’ মা-মেয়ে রোববার সকালে বাড়ি ফিরে স্বজনদের ঘটনা জানালে তারা জরুরি সেবা নম্বর-৯৯৯ এ কল দেন।

পরে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদলের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযুক্ত সাত্তার ও সাদেক আলীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। সাত্তার স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বার পদপ্রার্থী।

ওসি বছির আহমেদ বাদল বলেন, ‘সকালে ত্রিপল নাইন থেকে ম্যাসেজ আসার সঙ্গে সঙ্গে অভিযান চালিয়ে জড়িত দুই জনকে আটক করি। অন্যদের আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের ও ভুক্তভোগী মা-মেয়েকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শেরপুর সদর হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।’

শেয়ার করুন!