৩৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন



প্রতীকি ছবি।
আন্তর্জাতিক ডেস্ক/

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে শনাক্ত হওয়া করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন একে একে ৩৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে এতে এখনও পর্যন্ত কারও মৃত্যু হয়নি। গতকাল শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখপাত্র ক্রিশ্চিয়ান লিন্ডমিয়ার এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ওমিক্রনের বিরুদ্ধে আগে থেকেই

ব্যাপক আকারে জিনগত রূপ পরিবর্তনে সক্ষম এ ধরনের বিস্তার ঠেকাতে বিশ্বব্যাপী নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করা হচ্ছে। এর আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার নতুন ঢেউ আসার বিষয়ে সবাইকে প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান করেছিল। খবর এনডিটিভি, আল জাজিরা ও দ্য হিন্দুর।

শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিভাগীয় পরিচালক ড. তাকোশি কাসাই বলেন, ইতোমধ্যেই করোনার শক্তিশালী ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়েছে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে যে খবর আসছে, বাস্তবতা তার বিপরীত। এর উপসর্গ নিয়ে এখনও গবেষণা হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) প্রধান ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা বলেন, ডেলটার মতো নতুন এ ধরনও বিশ্ব অর্থনীতির পুনরুদ্ধারের গতি কমবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি বিভাগের পরিচালক মাইকেল রায়ান বলেন, খুব দ্রুত ওমিক্রন নিয়ে সবার প্রশ্নের উত্তর দেয়া সম্ভব হবে।

গত ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন প্রথমবারের মতো শনাক্ত হয়। ক্রমেই তা ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতে ছড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাঁচ বছরের কম বয়সীদের হাসপাতালে ভর্তির হার বেড়েছে। তবে দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, কমবয়সীদের ক্ষেত্রে ওমিক্রনের ঝুঁকি বেশি কি না সে বিষয়ে এখনই বলা যাচ্ছে না।

শেয়ার করুন!