কমলগঞ্জ সীমান্তে ৫ বাংলাদেশীকে বেধড়ক পেটালো বিএসএফ



কমলগঞ্জ/মৌলভীবাজার/প্রতিনিধি/

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের রাজকান্দি বনাঞ্চলের পাহাড়ি সীমান্ত এলাকায় বাঁশ কাটতে গেলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বিএসএফ ৫ বাংলাদেশীকে বেধড়কভাবে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৫ বাংলাদেশীকে পিটিয়ে ফেলে গেলে রাতে তাদের উদ্ধার করে পরিবার সদস্য ও গ্রামবাসীরা।

গত মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) বিকেলে এ ঘটনাটি ঘটে।

বিএসএফের হাতে নির্যাতিনের শিকার আদমপুর ইউনিয়নের আধকানি গ্রামের আবদাল হোসেন, আব্দুল আহাদ, হাবিব হাসান, নজির আলী ও আলিক মিয়া।

পূর্ব কাঁঠালকান্দি গ্রামের মধুচাষী আজাদ মিয়া জানান, মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে আদমপুরের ত্রিপুরা সীমান্তবর্তী পাহাড়ি এলাকা থেকে বাঁশ কাটতে গেলে বিএসএফ সদস্যরা বাংলাদেশী সীমান্তে প্রবেশ করে ৫ বাংলাদেশীকে ধরে বেধড়কভাবে পেটায়। সন্ধ্যায় আবার তাদেরকে বাংলাদেশের নো-ম্যান্স ল্যান্ড এলাকায় ফেলে যায়। তাদের পরিবার সদস্যরা ও গ্রামবাসীরা রাতে ৫জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দেয়। আহতদের মাঝে আফজাল ও নজিরের অবস্থা গুরুতর।

অন্যদিকে, গতকাল বুধবার সকালে ইসলামপুর ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকা থেকে ওয়াশিম, সাজু, মোস্তাকিম, আফরোজ. ময়নুল, হারুন, শফিক ও আরিফ নামের ৮ বাংলাদেশীকে বিএসএফ সদস্যরা ধরে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে ২ ঘন্টা পর ছেড়ে দিয়েছে।

এই সম্পর্কে শ্রীমঙ্গলস্থ ৪৬ নং বিজিবি ব্যাটেলিয়ন অধিনায়ক ল্যা. কর্ণেল মিজানুর রহমান সিকদার বলেন, তিনি শুনেছেন পাহাড়ি নো-ম্যান্স ল্যান্ড এলাকায় বাঁশ কাটতে গিয়ে অসাবধানতাবশত ভারতের অংশে বাংলাদেশীরা প্রবেশ করেছিল। তখন বিএসএফ সদস্যরা বাংলাদেশীদের ধাওয়া করেছে। কাউকে মারধর করা বা ধরে নেওয়ার মত কোন তথ্য তাদের কাছে নেই। তারপরও বিজিবি বিষয়টি তদন্ত করে দেখবে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন!