মালদ্বীপে দুর্ঘটনায় আহত প্রবাসীকে টিকিট হস্তান্তর করলেন বাংলাদেশ দূতাবাস



মোঃ ওমর ফারুক অনিক, মালদ্বীপ থেকে/

নিজের ও পরিবারের ভাগ্য বদলাবার লক্ষ্যে এক মধুর স্বপ্ন নিয়ে দেশের মায়া ত্যাগ করে মালদ্বীপে পাড়ি জমান প্রবাসী মোহাম্মদ আব্বাস আলী। কিন্তু করোনার মহামারীর কারনে বিশ্বে অর্থনীতিক মন্দার পর থেকে নিত্য নতুন অনেক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে মালদ্বীপ প্রবাসী শ্রমিকরা। কাজ না পেয়ে, খেয়ে না খেয়ে থেকে, দুর্ঘটনার শিকার হয়ে কেউ শূন্য হাতে, কেউ বা লাশ হয়ে প্রতিনিয়ত ফিরে যাচ্ছে মাতৃ ভূমিতে। তেমনই এক এক করে কষ্টের গল্পে লেখা হচ্ছে প্রবাসীদের শ্রমের ভাগ্য।

লিফট দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন মালদ্বীপ প্রবাসী মোহাম্মদ আব্বাস আলী। তার গ্রমের বাড়ি টাংগাইল জেলার, ধনবাড়ী উপজেলার, রতন কান্দী গ্রামের মোঃ হায়দার আলীর পুত্র। নিজের এবং পরিবারের স্বপ্নপূরণের আশায় গত ১০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে মালদ্বীপে আসেন এবং অনিয়মিত কর্মী হিসেবে ডেইলি কাজে কর্মরত ছিলেন মালদ্বীপের ছোট বড় অনেক কোম্পানিতে। গত ৯ এপ্রিল সায়মা হিঙ্গুনে লিফটে মালা-মাল লোড করার সময় দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন প্রবাসী বাংলাদেশী মোহাম্মদ আব্বাস আলী। দ্রুত দেশে ফিরে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য মালদ্বীপস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে একটি বিমান টিকেট হস্তান্তর করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব ও দুতালয় প্রধান জনাব মোঃ সোহেল পারভেজ। এসময় উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কল্যাণ সহকারী জনাব মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন। ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড-Wage Earners Welfare Board.

প্রসঙ্গত, মালদ্বীপে কর্মস্থলে লিফটের দুর্ঘটনাজনিত কারণে গুরুতর আহত হয় প্রবাসী মোহাম্মদ আব্বাস আলীর দু’টি পা। দুর্ঘটনায় তিনি স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলার ক্ষমতা হারান সঙ্গে কর্মশক্তিও। গত এক মাস যাবত চিকিৎসাধীন ছিলেন রাজধানীর পার্শ্ববর্তী হুলেমালে সিটি’র সরকারি হাসপাতালে। এইখানে তার চিকিৎসায় হাঁটা চলার সাভাবিক পরিবর্তন না হওয়ায়, উন্নত চিকিৎসার উদ্দেশ্যে গতকাল ৩ মে একটি ফ্লাইটে বাংলাদেশে ফিরে গেছেন।মালদ্বীপস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষথেকে তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন।

শেয়ার করুন!