প্রেমের টানে ঢাকা থেকে চুনারুঘাটে প্রেমিকা, অত:পর গণধর্ষণ!



প্রতীকী ছবি।
জুয়েল চৌধুরী, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি/

ঢাকা থেকে চুনারুঘাটে প্রেমিকের সাথে দেখা করতে এসে এক তরুণী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় র‌্যাব-৯’র একটি দল ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে আটক করলেও ভিকটিম তার ছবি দেখে সে নয় বলে জানিয়েছে। এ ঘটনাটি নিয়ে জেলাজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ওই তরুণী ঢাকা জেলার মিরপুর এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ৪ জনকে আসামী করে চুনারুঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

জানা যায়, মোবাইল ফোনে রং- নাম্বারে পরিচয় হয় শায়েস্তাগঞ্জের সাগর নামে এক যুবকের সাথে। দীর্ঘদিন ফোনে কথা হয় এবং একজন আরেকজনকে ইমুতে দেখে পছন্দ করে। সাগর তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ নিয়ে আসে গত বুধবার রাতে। ওই তরুণী শায়েস্তাগঞ্জ আসার পর সাগরের সাথে পুরাসুন্দা একটি পাহারে বেড়াতে যায়। সেখানে চারজন মিলে তাকে গণধর্ষণ করে এবং বাগানে ফেলে পালিয়ে যায় তারা। কয়েকজন দেখে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় নেয়া হয় রাত ১২টার দিকে। সেখান থেকে বলা হয় এটা মাধবপুর থানার ঘটনা। পরে তাকে মাধবপুর নেয়া হয়। মাধবপুর থেকে আবার বলা হয় চুনারুঘাট থানায় ঘটনা। এরকম টানাপোড়ন করতে গিয়ে ভিকটিমের অবস্থা আশঙ্কা জনক হয়ে পড়ে রাতও ঘনিয়ে যায়। অবশেষে চুনারুঘাট থানায় যাওয়ার পর চুনারুঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নির্ধারণ করেন চুনারুঘাট থানায় মামলা নেয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে ভিকটিমকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে উক্ত মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত গোলাম মোস্তফা জানান, আসামীদেরকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। অচিরেই ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হবে। র‌্যাব যদিও একজনকে আটক করেছে তবে ভিকটিম তাকে শনাক্ত করেনি।

শেয়ার করুন!