সিলেটে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দুর্গতদের পুর্নবাসনের আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর



সিলেট প্রতিনিধি/

সিলেট বিভাগে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা প্রস্তুত ও বন্যা দুর্গতদের পুর্নবাসনে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২১ জুন) সকালে সিলেট সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসন আয়োজিত বন্যা দুর্গতদের পুনর্বাসনের এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন বন্যা নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার। আমাদের পক্ষ থেকে যা যা করণীয় সব করে যাচ্ছি। আমি এই জন্যই সিলেট সফরে এসেছি। আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ আমাদের নেতাকর্মীদের বলব সবাইকে মাঠে নামতে হবে। বন্যা দুর্গতদের পাশে থাকতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সব ধরনের অবকাঠামো বন্যা নিয়ন্ত্রক হতে হবে। বন্যার সময় বৃষ্টির পানি ধরে রাখতে হবে। পানি বিশুদ্ধকরণ টেবলেট ও খাবার সেলাইন পর্যাপ্ত সঙ্গে রাখতে হবে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, সিলেট অঞ্চলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে সহায়তা দেয়া হবে। ভয়াবহ বন্যায় যেখানে কেউ যেতে পারেনি সেখানে আমাদের কর্মীরা কাজ করছে। তারা আমার কাছে ছবি পাঠিয়েছে। আমি সঙ্গে সঙ্গে সেনাবাহিনীসহ সব বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি। আমরা সরকারে থাকি বা না থাকি আমরা অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। ঝড় ও বন্যা হলে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে বলেও জানান তিনি।

মঙ্গলবার সিলেটে বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিএমও

এর আগে তিনি সকাল ৮টায় নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ ও সিলেটের বন্যা কবলিত অঞ্চল পরিদর্শন করেন। সিলেটে এসে প্রথমে তিনি সার্কিট হাউসে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে এক সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। সভা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হযরত শাহজালাল (র.) ও শাহপরানের (র.) মাজার জিয়ারত করেন। দুপুর ১টা ২৯ মিনিটে হযরত শাহজালালের (র.) মাজার প্রাঙ্গণে প্রবেশ করেন তিনি। সেখানে তিনি জোহরের নামাজ ও মাজার জিয়ারত করেন। দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী মাজার থেকে বের হন। এরপর শাহপরান (র.) মাজার জিয়ারত শেষে বেলা ২টা ৪০ মিনিটে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গিয়ে পৌঁছান। সেখান থেকে তিনি হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেন।

শেয়ার করুন!