‘কাল থেকে শুরু এসএসসি পরীক্ষা’



ফাইল ছবি।
বিশেষ প্রতিবেদক/

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাবকমিটির সভাপতি তপন সরকার বলেছেন, ‘বৃহস্পতিবার (আগামীকাল) থেকে শুরু হতে যাওয়া এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নিয়ে কোনো অনিশ্চয়তা নেই। বৈরী আবহাওয়া থাকলেও যথারীতি পরীক্ষা শুরু করা হবে।’

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) তপন সরকার জানান, বৃষ্টির কারণে সমস্যা হচ্ছে কি না, সে বিষয়ে কেন্দ্র সচিবদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে, পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতেও কোনো সমস্যা হবে না।

অন্যবার সকাল ১০টায় পরীক্ষা শুরু হলেও এবার যানজটের কথা বিবেচনা করে বেলা ১১টায় এই পরীক্ষা শুরু হবে। শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্র ঢুকতে হবে।

এর আগে ৫ সেপ্টেম্বর এসএসসি-সমমানের পরীক্ষার আইনশৃঙ্খলা-সংক্রান্ত বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, ‌‘আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষার মাধ্যমে সারাদেশে একযোগে শুরু হচ্ছে ২০২২ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এবার মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ বছর ৩ ঘণ্টার পরিবর্তে প্রতিটি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২ ঘণ্টা। বেলা ১১টা থেকে পরীক্ষা শুরু হয়ে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে অর্থাৎ ১০টা ৩০ মিনিটের মধ্যে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে পরীক্ষার্থীদের। গত বছরের তুলনায় এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। তবে পরীক্ষার কেন্দ্র ও প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে এ বছর মোট ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৭১১ শিক্ষার্থী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। মাদ্রাসা বোর্ডের দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন ২ লাখ ৬৮ হাজার ৪৯৫ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৫৩ হাজার ৬৬২ জন।

এবার সারাদেশে মোট পরীক্ষা কেন্দ্র ৩ হাজার ৭৯০টি। গত বছর ছিল ৩ হাজার ৬৭৯টি। সে হিসেবে মোট কেন্দ্র বেড়েছে ১১১টি। এ বছর মোট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২৯ হাজার ৫৯১টি। গত বছর ছিল ২৯ হাজার ৩৫টি। সে হিসেবে মোট প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ৫৫৬টি।

শেয়ার করুন!