জজকে প্রত‌্যাহার কেন বেআইনি নয়



সিএনবাংলাদেশ ডেস্ক :

পিরোজপুরের সাংসদ এ কে এম আউয়াল দম্পতির জামিন নামঞ্জুরকে কেন্দ্র করে জেলা জজ আব্দুল মান্নানকে স্ট্যান্ড রিলিজের (তাৎক্ষণিক প্রত্যাহার) আদেশ কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে আইন সচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে নিয়ে বুধবার বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ স্ব-প্রণোদিতভাবে এ রুল জারি করেন। পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতে তুলে ধরেন ব্যারিস্টার আব্দুল কাইয়ুম লিটন। সাথে ছিলেন অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ।

এর আগে বুধবার (৪ মার্চ ) সকালে হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চ জেলা জজকে স্ট্যান্ড রিলিজের ঘটনা প্রধান বিচারপতির নজরে আনার পরামর্শ দিয়েছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে সাবেক এমপি আউয়াল ও তার স্ত্রী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী লায়লা পারভীন দুর্নীতি মামলায় জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নানের আদালতে হাজির হলে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ আদেশের কিছু সময় পর জেলা দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নানকে স্ট্যান্ড রিলিজ করেন আইন মন্ত্রণালয়। একই সাথে তাকে মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করা হয় এবং তার দায়িত্ব অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ নাহিদ নাছরিনকে বুঝিয়ে দিতে বলা হয়। পরে ভারপ্রাপ্ত দায়রা জজ নাহিদ নাছরিন তার ক্ষমতা বলে আউয়াল দম্পতির জামিন দেন।

শেয়ার করুন!